মেধা মূল্যায়নের স্বার্থে কোটা সংস্কার অপরিহার্য – আল্লামা হাবীবুর রহমান

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর প্রিন্সিপাল আল্লামা হাবীবুর রহমান বলেছেন, অনেক ত্যাগ ও রক্তের বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জন করলেও দেশের মানুষ তা ভোগ করতে পারছে না। মানুষ তাদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত, মানুষকে মানুষের দাসত্ব থেকে মুক্ত করে আনতে আল্লাহর দাসত্ব গ্রহণ করার জন্যই আল্লাহ নবী ও রাসূল পৃথিবীতে প্রেরণ করেছেন। ইসলামই মানুষকে আল্লাহর হুকুম অনুযায়ী জীবন পরিচালনার জন্য স্বাধীনতা দিয়েছেন। সুতরাং প্রকৃত স্বাধীনতা ভোগ করতে হলে খেলাফত রাষ্ট্রব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তিনি বলেন, মানুষের জান-মালের কোন নিরাপত্তা নেই। গুম, হত্যা, ধর্ষণ, সন্ত্রাস বেড়েই চলছে। দেশের মানুষ উদ্বিগ্ন ও আস্থাহীনতায় ভুগছে। সরকারের কর্তব্য মানুষের আস্থা অর্জন করে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করা, মানুষের মৌলিক অধিকারের নিশ্চয়তা উপেক্ষা করে সরকারে থাকার স্বপ্ন দেখা অসম্ভব। সম্প্রতি কোটা প্রথা প্রসঙ্গে বলেন, বাঙলাদেশকে মেধা শূন্যের চক্রান্তের একটি অংশ হচ্ছে কোটা প্রথা। কোটা প্রথার মাধ্যমে মেধাবীদেরকে দেশের সেবা থেকে দূরে রাখা হচ্ছে, এর ফলে প্রশ্নপত্র ফাঁস দেশের প্রতিটি সেক্টরে দলীয়করণের মাধ্যমে দুর্নীতির মহড়া বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি সংগঠনের সকল জনশক্তি ও সুধীদেরকে খেলাফত প্রতিষ্ঠার কাজকে এগিয়ে নিতে নিজেদের জান-মাল বেশি বেশি ব্যয় করার আহবান জানান।
মঙ্গলবার বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস সিলেট মহানগর ও জেলা শাখার উদ্যোগে জামেয়া মাদানিয়া মিলনায়তনে দায়িত্বশীল ও সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন।
কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও সিলেট জেলা সভাপতি মাওলানা রেজাউল করিম জালালী ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও মহানগর সভাপতি আলহাজ¦ মাওলানা সিরাজুল ইসলাম সিরাজীর সভাপতিত্বে এবং সিলেট মহানগর সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ মাওলানা এমরান আলম ও জেলা সাধারণ সম্পাদক হাফিজ মাওলানা আতিকুর রহমান এর যৌথ পরিচালনায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব মুফতি মাওলানা মাহফুজুল হক। তিনি তার বক্তব্যে সংগঠনের কার্যক্রমকে আরো বেগবান করার আহবান জানিয়ে বলেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস প্রতিষ্ঠার পর থেকে ধারাবাহিকভাবে দেশ, জাতি ও ইসলামের কল্যাণে এবং দেশী-বিদেশী বিভিন্ন ইস্যুতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। তিনি সংগঠনের প্রত্যেক দায়িত্বশীলকে সংগঠনের কার্যক্রমকে আরো জোরদার করার আহবান জানান।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন-সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আব্দুল আজিজ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য মাওলানা নিয়ামত উল্লাহ, সিলেট মহানগর সহ-সভাপতি মাওলানা শাহ মমশাদ আহমদ, মাওলানা গাজী রহমত উল্লাহ, জেলা সহ-সভাপতি মুফতি মুহাম্মদ শফীকুর রহমান, মাওলানা ইকবাল হোসাইন, মাওলানা আব্দুস সামাদ, প্রিন্সি মাওলানা জাহিদ উদ্দিন চৌধুরী, মাওলানা আব্দুল কাইয়ুম হাজীপুরী, মহানগর সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা পীর আব্দুল জব্বার, মাওলানা মঞ্জুর আহমদ, মাওলানা ক্বারী মুখতার আহমদ, মাওলানা তফজ্জুল হক, মাওলানা আব্দুল কাইয়ুম, সংগঠনের যুক্তরাজ্য শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক প্রবাসী কমিউনিটি নেতা মাওলানা জাহাঙ্গীর খান, মহানগর সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সামিউর রহমান মুসা, মাওলানা আব্দুল আহাদ, জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক ক্বারী উবায়দুর রহমান, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজ কাজী জুনাইদ আহমদ, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি রশীদ আহমদ, মাওলানা ফাহাদ আমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজ কয়েস আহমদ, মাওলানা আমীন আহমদ রাজু, জেলা সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মুতাসিম বিল্লাহ জালালী, মহানগর বায়তুল মাল সম্পাদক মোঃ আব্দুল গাফফার, জেলা বায়তুল মাল সম্পাদক মাওলানা ফখরুল ইসলাম, জেলা প্রশিক্ষণ সম্পাদক ডা: মাওলানা মোস্তফা আজাদ, সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক হাফিজ আব্দুর রব, মহানগর প্রশিক্ষণ সম্পাদক হাফিজ মাওলানা মুশফিকুর রহমান মামুন, জেলা প্রচার সম্পাদক মুফতি মুহাম্মদ মাহবুবুল হক, মহানগর প্রচার সম্পাদক হাফিজ মাওলানা রিয়াজ আল মামুন, অফিস সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা বদরুল আলম, জেলা অফিস সম্পাদক মুফতি ওযিরুল ইসলাম মাসউদ, জেলা সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মাওলানা জাকারিয়া মাসুদ, গোলাম রব্বানী, মাওলানা আব্দুল মালিক, আব্দুল খালিক, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি পরিষদ সদস্য ও মহানগর সভাপতি তারিক বিন হাবীব, সেক্রেটারী মুহাম্মদ রশীদ মুশতাক প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি