গোলাপগঞ্জে গৃহবধূর আত্মহত্যা

গোলাপগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
গোলাপগঞ্জে কনিকা রানি মালাকার (২৪) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। সে উপজেলার ফুলবাড়ী ইউপির হেতিমগঞ্জ মোল্লাপাড়া গ্রামের মৃত মনোচঞ্জন মালাকারের ছেলে রাজু মালাকারের স্ত্রী। ঢাকাদক্ষিণ ইউপির দত্তরাইল ফারুক মিয়ার কলোনির বাসিন্দা। খবর পেয়ে শনিবার বিকাল ৫টায় পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে। নিহতের স্বামী রাজু মালাকার জানান, তিনি পেশায় একজন ট্রাক হেলপার। প্রতিদিনের মত সকাল ৮টায় বাড়ী থেকে বের হন। দুপুর ২টায় ভাত খাওয়ার জন্য বাসায় আসেন। এসে দেখেন ঘরের দরজা খুলা। পরে সে ঘরে প্রবেশ করে দেখে তার স্ত্রী ঘরের তীরের সাথে নিজ শাড়ি পেঁচিয়ে সে আত্মহত্যা করে ঝুলে রয়েছে। পরে আমি তার দেহ নামিয়ে প্রতিবেশিদের সহযোগীতায় পুলিশকে খবর দেই। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোলাপগঞ্জ মডেল থানার এসআই মৃদূল। এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি (তদন্ত) মীর আবুন নাছেরের সাথে আলাপ করা হলে তিনি জানান,আমাদের প্রাথমিক ধারণা সে নিজেই আত্মহত্যা করছে। তবে আমারা লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছি। আমরা একটি ইউডি মামলা নিয়েছি। লাশ উদ্ধারের সময় নিহতের স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। এদিকে মায়ের মৃত্যুতে দিশেহারা হয়ে পড়েছে সন্না রানি মালাকার (৫) ও অন্না রানি মালাকার (৩) নামে নিহতের দুটি অবুঝ শিশু। মাকে থানা পুলিশ নিয়ে আসার সময় নিহতের দুই কন্যা শিশুকেও নিয়ে আসে। থানায় গিয়ে দেখা যায় দুটি শিশুর কান্না থামছে না। তাদের কান্না থামানোর জন্য পুলিশ তাদের দুটি পটেটো এনে দিয়ে কান্না থামায়।