বেলা শেষে

আল হাবিব

আর কতদিন মুখ লুকিয়ে সত্য কে মিথ্যে বলা
আর কতদিন নগ্ন হয়ে তাল মেলানোর পথ চলা?
কোন খবরে, কোন বইয়ে আসল সত্য খুঁজে বেড়াস?
ওসব খবর, সব বইয়ের পেছনে যে তালা মারা!

আর কত খুন, আর কত লাশ দেখবি তোরা চেতনার দল?
আর কত ভয়, আর কত ক্ষয় হলে তোরা জাগবি বল?
কবরের ভেতর যারা শুয়ে আছে, তাদের কাছে একটু দাঁড়া
ওরাও একদিন মানুষ ছিল , নাকি ছিলনা?
রূপ ছিলনা, তাজা রক্ত ছিলনা, যৌবন ছিলনা বাঁধন হারা?

সেসব হায়! মিশেছে কোথায়? মলিন মাটির তলে,
পারলে সবাই যুদ্ধ করো ডেমোক্রেসির বলে!
মানুষের শাসন করতে পারেনি মৃত্যুকে খুন যখন,
ওপথ হারার বুঝতে বাকী আর কি থাকে তখন?
গণতন্ত্র যে তোমার রবের আদেশ-নিষেধ মানেনা জানো?
কেমন করে সেপথে তুমি মুসলিম হয়ে রক্ত ঢালো?
কেমন করে ভোট দাও তুমি? কেমন করে অস্ত্র ধরো?
কেমন করে কল্যান আনো, কেমন করে জ্বলো আলো?
নাকি মুসলিম নও তুমি?

সেই পথ হেঁটে, সেই পথ ঘেটে ক্লান্ত হয়ে শেষে,
সময় হারিয়ে, পাপের বোঝাতে একদিন যাবে ফেঁসে।
রবের আদেশে মৃত্যু যখন দ^াড়াবে তোমার দ্বারে,
কার কাছে তুমি মিনতি করিবে, ডাকবে তুমি কারে?

রবের বাণী না মেনে তুমি বানিয়ে নিয়েছ নিজ বিধান,
রবের কাছে কিভাবে চাবে সকল ভুলের সমাধান?
হেরে গেলে জীবন শেষে, পরীক্ষার সময় শেষ রে,
তবু এ হারা শেষ হলে হয় ! কেবল হারার শুরু যে।

ঘোরের মধ্যে সময় হারায়, পথে ফেরার সময় কম
বিষম খাবি, হতাশ হবি হঠাৎ যখন ফুরাবে দম।

আয় ফিরে আয় রবের পথে, রবের কাছে নত হ’,
দুনিয়া শেষে জয়ীর বেশে অনন্তকাল সুখে র’।