ড্রেন পরিষ্কারে সিটি কর্পোরেশনের নতুন মেশিন সংযুক্ত

স্টাফ রিপোর্টার :
নগরীর ড্রেনেজ ও জলাবদ্ধতা সমাধানে ড্রেন পরিষ্কারের জন্য এবার সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে কেনা হয়েছে নতুন একটি মেশিন। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টায় নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে মেশিনটি দিয়ে কাজ শুরু করেন মেয়র আরিফ ও সংশ্লিষ্টরা।
ইটালির প্রযুক্তিতে তৈরী জেট এন্ড সাকার নামের এই মেশিনটি কিনতে সিসিকের ব্যয় হয়েছে প্রায় ৮ কোটি টাকা। নারায়ণগঞ্জের সরকারি ডকইয়ার্ড থেকে মেশিনটি কয়েকদিন আগে সিলেটে আনা হয়েছে। এই মেশিনের সাহায্যে ড্রেন থেকে প্রতিঘন্টায় প্রায় ৯ টন ময়লা অপসারণ করা যাবে।
সংশ্লিষ্টরা জানান- জেট এন্ড সাকার মেশিনটির বৈশিষ্ট হচ্ছে এটি পাইপের মাধ্যমে প্রথমে পানি ও চাপ সৃষ্টির মাধ্যমে ড্রেনের মধ্যে থাকা বর্জ্যগুলোকে তরলে পরিণত করবে। পরবর্তীতে আরেকটি পাইপের সাহায্যে বর্জ্যগুলো সরাসরি গাড়িতে নিয়ে নেবে। প্রতিঘন্টায় প্রায় ৯ টন ময়লা এই মেশিনের সাহায্যে তোলা যাবে। তবে কঠিন ড্রেনে পদার্থ বেশী থাকলে সময় কিছু বেশী লাগতে পারে।
এই মেশিনের ব্যাপারে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, জেট এন্ড সাকার মেশিনটির সাহায্যে আমরা অতিদ্রুত নগরীর বড় রাস্তার সাথে থাকা ড্রেনগুলো খুব সহজে পরিষ্কার করতে পারব। এতে খরচও অনেক কম হবে, সেই সাথে জনবলও অনেক কম ব্যবহার হবে। এখন আমাদের বড় ড্রেনগুলো পরিষ্কার করতে ময়লা তুলে রেখে পরে সড়াতে হয়, এতে নগরবাসীর দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এই মেশিনের সাহায্যে ড্রেন পরিষ্কার করলে মানুষ এসব দুর্ভোগ থেকে রক্ষা পাবে। মেয়র আরো বলেন, আপাতত এই মেশিন দিয়ে নগরীর বড় রাস্তাগুলোর সাথে থাকা ড্রেন, বক্স ড্রেনগুলো পরিষ্কার করতে পারব। কিন্তু বিভিন্ন এলাকার ভেতরে থাকা ছোট-ছোট ড্রেনগুলো এর মাধ্যমে পরিষ্কার করা সম্ভব হবে না। তবে, এটি থেকে সুফল পেলে এরকম আরো কয়েকটি মেশিন আনার পরিকল্পনা রয়েছে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজ, কাউন্সিলর তৌফিকুল হাদি, আমজাদ হোসেন, আব্দুল মুহিত জাবেদ, উপ সহকারী প্রকৌশলী মো. তানভীর আহমদ (তানিম), পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা হানিফুর রহমানসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।