ছাতকে বিল দখল নিয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত ১০

ছাতক থেকে সংবাদদাতা :
ছাতকে বিলের দখল নিয়ে দু’দিন পর ফের গোলাগুলির ঘটনায় গুলিবিদ্ধসহ ১০জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ দু’জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার সকালে উপজেলা দোলারবাজার ইউনিয়নের কুড়া চাতল বিলে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, মঈনপুর গ্রামের আবদুর রব ও রাউলী গ্রামের ছাদিক মিয়া পৃথক দু’টি মৎস্যজীবী সমিতির সাইন বোর্ডের আড়ালে কুড়াচাতল বিল জবর-দখল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আবদুর রব পক্ষের মধ্যে রয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান সায়েস্তা মিয়াসহ উত্তর ও দক্ষিণ কুর্শির কতিপয় লোক। এভাবে ছাদিক মিয়া পক্ষেও রয়েছেন মঈনপুর, উত্তর ও দক্ষিণ কুর্শি গ্রামের কতিপয় লোকজন। এ দু’পক্ষেই রয়েছে অস্ত্র, গোলা বারুদ ও দেশিয় অস্ত্রশস্ত্র। জনবলও তাদের কম নয়। ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসি নিয়েও বিলের চারপাশে মহড়া দিয়ে আসছেন ক’দিন ধরে। সম্প্রতি বিলের মাছ ধরার মৌসুম ঘনিয়ে আসার সাথে সাথেই দু’পক্ষে সংঘাত-সংঘর্ষ শুরু হতে থাকে। এ নিয়ে চলমান অস্ত্রবাজির ঘটনার একপর্যায়ে ৫ ফেব্র“য়ারি দিবাগত রাত প্রায় ১টায় আবদুর রব ও ছাদিক মিয়ার পক্ষের লোকজনের মধ্যে বিলের দখল নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের একাধিক ব্যক্তি আহত হয়। আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার দু’দিন পর বুধবার সকালে আবারো দু’পক্ষে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে মঈনপুর গ্রামের বাছন মিয়া (৪৫) ও আমতৈল গ্রামের মধু মিয়া (৪০) গুলিবিদ্ধ হলে তাদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অন্যান্য আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান শায়েস্তা মিয়া ও ছাদিক মিয়ার সাথে যোগাযোগ করে তাদেরকে পাওয়া যায়নি। ছাতক থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আতিকুর রহমান জানিয়েছেন খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলেন।