তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে কানাইঘাটে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত ৪০

কানাইঘাট থেকে সংবাদদাতা :
কানাইঘাট বড়চতুল ইউপির হারাতৈল উপর বড়াই ও বাগরআগন গ্রামবাসীর মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গতকাল মঙ্গলবার অনুমান ১০টার দিকে সংঘর্ষে উভয় গ্রামের অন্তত ৪০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষের খবর পেয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) লুসি কান্ত হাজং ও কানাইঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসী ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাওঃ আবুল হোসেনের সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। এ নিয়ে দু’গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয় এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানা যায়, গত সোমবার স্থানীয় হারাতৈল কৌমি মাদ্রাসার বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল ছিল। মাহফিলে দোকান বসানোকে কেন্দ্র করে বাগেরআগন গ্রামের মুজম্মিল আলীর পুত্র বদরুল ইসলাম ও হারাতৈল গ্রামের জিয়াউল হকের পুত্র আবুল হোসেনের মধ্যে মারামারি হয়। এরই জের ধরে মঙ্গলবার উভয় গ্রামের লোকজন তাদের মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে উভয় গ্রামের মধ্যখানে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। প্রায় আধঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষে উভয় গ্রামের অনন্ত ৪০ জন আহত হন। তবে আহতদের নাম জানা যায় নি, গুরুতর আহত অবস্থায় কয়েকজনকে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আহাদ জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন পক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি।