Tag:

বালাগঞ্জে ও ওসমানীনগরে পৃথক ডাকাতির ঘটনায় ১৪ লাখ টাকার মালামাল লুট ॥ ডাকাতদের ছোঁড়া গুলিতে আহত ২, আটক ১

ওসমানীনগর থেকে সংবাদদাতা :
বালাগঞ্জ ও ওসমানীনগরে পৃথক ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। মঙ্গলবার দিনগত রাতে ওসমানীনগরের উছমানপুর গ্রামের নূরুল ইসলামের বাড়িতে এবং সোমবার দিনগত রাতে বালাগঞ্জ উপজেলা সদরস্থ নবীনগরে জাকারিয়া আহমদ সুমনের বাসায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ওসমানীনগরের সৈয়দ নূরুল ইসলাম শাহজাহান বাড়ি থেকে ডাকাতরা সাড়ে ৮ লক্ষ টাকার মালামাল ও বালাগঞ্জে জাকারিয়া আহমদ সুমনের বাসা থেকে ৫ লক্ষ টাকার মারামাল লুট করে নিয়ে যায়।
ওসমানীনগরে ডাকাতদের প্রতিরোধ করতে দিয়ে ডাকাত দলের গুলিতে স্থানীয় দুই ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বালাগঞ্জে ডাকাতির ঘটনায় জাকারিয়া আহমদ সুমন বাদি হয়ে মঙ্গলবার রাতে বালাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১। ডাকাতির ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে উপজেলার তিঁলকচানপুর গ্রামের নূর মিয়া ছেলে রাজা মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।
স্থানীয় বাসিন্দা ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার সূত্রে জানা যায়, ওসমানীনগরের উছমানপুর গ্রামের সৈয়দ নূরুল ইসলামের বাড়িতে মঙ্গলবার দিনগত রাত অনুমানিক দেড়টার দিকে ১৪-১৫ জনের সশস্ত্র ডাকাত দল হানা দেয়। ডাকাতরা ঘরের দরজা ভেঙে বসত ঘরে প্রবেশ করে। ঘরে থাকা লোকজনেকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তাদের হাত-পা ও চোখ-মুখ বেঁধে ঘরের মালপত্র তছনছ করে প্রায় ২০ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ৩৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। গ্রামে ডাকাত পড়ার খবরে এলাকার লোকজন ডাকাতদের প্রতিরোধ করতে চাইলে ডাকাত দলের সদস্যদের গুলিতে উছমানপুর গ্রামের সুরত আলীর পুত্র সায়েক আহমদ (৩৫) ও মফিজ উল্লাহর পুত্র আরিফ মিয়া (২৪) গুলিবিদ্ধ হন। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। বুধবার সকালের দিকে ওসমানীনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ডাকাতির ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ওসমানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সহিদ উল্যা ডাকাতির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছি। ডাকাতির ঘটনায় বিস্তারিত খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এদিকে সোমবার দিনগত রাত অনুমানিক আড়াইটার দিকে বালাগঞ্জে উপজেলা সদরে নবীনগরের জাকারিয়া আহমদ সুমনের বাসায় মুখোশধারী ডাকাত দল বাসার কলাসিপল গেইট কেটে বাসার দরজা ভেঙে ঘরে ভিতরে প্রবেশ করে। বাসার লোকজনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ১০ ভরি স্বর্ণালংকার, ৮টি মোবাইল সেট ও নগদ ২৪ হাজার টাকাসহ মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম জালাল উদ্দিন বলেন, ডাকাতির ঘটনায় জাকারিয়া আহমদ সুমন বাদি হয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ডাকাতির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে রাজা মিয়া নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।