সান্ত্বনার জয়ে টুর্নামেন্ট শেষ চিটাগংয়ের

স্পোর্টস ডেস্ক :
সান্ত্বনার জয়ে এবারের বিপিএল মিশন শেষ করলো চিটাগং ভাইকিংস। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) মঙ্গলবার দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে রাজশাহী কিংসকে ৪৫ রানে হারালো তারা। লিগ পর্বে মোট ১২টি ম্যাচ খেলে এটি তাদের তৃতীয় জয়। একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় সাত পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে সপ্তম অবস্থানে থেকে টুর্নামেন্ট শেষ করলো চিটাগং।
অন্যদিকে, রাজশাহী কিংস ১২টি ম্যাচ খেলে চারটিতে জয় পেয়েছে। আট পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে ষষ্ঠ অবস্থানে থেকে তারা টুর্নামেন্ট শেষ করলো। এবার প্লে-অফে উঠেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, ঢাকা ডায়নামাইটস, রংপুর রাইডার্স ও খুলনা টাইটান্স। লিগ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে চিটাগং ভাইকিংস, রাজশাহী কিংস ও সিলেট সিক্সার্স।
এদিন মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে চিটাগং ভাইকিংসের দেয়া ১৯৫ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে নয় উইকেট হারিয়ে ১৪৯ রান সংগ্রহ করে রাজশাহী কিংস। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬২ রান করেন সমিত প্যাটেল। চিটাগং ভাইকিংসের পক্ষে সিকান্দার রাজা চার ওভার বল করে ১৬ রান দিয়ে চারটি উইকেট নেন। এছাড়া সানজামুল ইসলাম ২টি, তাসকিন আহমেদ ১টি, রায়ান এমরিত ১টি ও লুইস রিসি ১টি করে উইকেট নেন।
রাজশাহী কিংস ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ১৩ রানে প্রথম উইকেট হারায়। সানজামুল ইসলামের বলে লুইস রিসির হাতে ক্যাচ হন রনি তালুকদার। ইনিংসের সপ্তম ওভারে নিজের বলে নিজেই ক্যাচ নিয়ে মুমিনুল হককে ফেরান সানজামুল।
দলীয় ৮৬ রানে লুইস রিসির বলে উইকেটক্ষকের হাতে ক্যাচ হন সমিত প্যাটেল। ২৬ বল খেলে ৬২ রান করেন তিনি। এই রান করার পথে তিনি ছয়টি চার ও পাঁচটি ছক্কা হাঁকান।
ইনিংসের ১৩তম ওভারের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে যথাক্রমে মুশফিকুর রহিম ও উসামা মীরকে ফেরান সিকান্দার রাজা। মুশফিকুর রহিম বোল্ড হন। আর এলবিডব্লিউ হন উসামা মীর। ইনিংসের ১৬তম ওভারে তাসকিন আহমেদের বলে সানজামুল ইসলামের হাতে ধরা পড়েন জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন।
১৭তম ওভারে রায়াদ এমরিতের বলে তানভীর হায়দারের হাতে ক্যাচ হন মেহেদী হাসান মিরাজ। ১৮তম ওভারের পঞ্চম ও ষষ্ঠ বলে যথাক্রমে মোহাম্মদ সামি ও জাকির হাসানকে ফেরান সিকান্দার রাজা। ইনিংস শেষে কাজী অনিক ৩ রান করে ও মোস্তাফিজুর রহমান ১ রান করে অপরাজিত থাকেন।
এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে ১৯৪ রান সংগ্রহ করে চিটাগং ভাইকিংস। দলের পক্ষে ৩০ বল খেলে ৪২ রান করেন লুকে রঞ্চি। ৫৬ বল খেলে ৮০ রান করে অপরাজিত থাকেন লুইস রিসি। ১৬ বল খেলে ১৭ রান করেন সৌম্য সরকার। ২০ বল খেলে ৪২ রান করে অপরাজিত থাকেন সিকান্দার রাজা। রাজশাহী কিংসের পক্ষে মেহেদী হাসান মিরাজ দুইটি উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
ফল: ৪৫ রানে জয়ী চিটাগং ভাইকিংস।
চিটাগং ভাইকিংস ইনিংস: ১৯৪/২ (২০ ওভার)
(লুকে রঞ্চি ৪২, লুইস রিসি ৮০*, সৌম্য সরকার ১৭, সিকান্দার রাজা ৪২*; মোস্তাফিজুর রহমান ০/৪১, মোহাম্মদ সামি ০/৪৯, উসামা মীর ০/৩২, কাজী অনিক ০/২৭, মেহেদী হাসান মিরাজ ২/১৮, সমিত প্যাটেল ০/৮, জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন ০/১২)।
রাজশাহী কিংস ইনিংস: ১৪৯/৯ (২০ ওভার)
(মুমিনুল হক ৯, রনি তালুকদার ৬, সমিত প্যাটেল ৬২, মুশফিকুর রহিম ১৫, জাকির হাসান, উসামা মীর ০, জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন ১৭, মেহেদী হাসান মিরাজ ৬, মোহাম্মদ সামি ১, কাজী অনিক ৩*, মোস্তাফিজুর রহমান ১*; সানজামুল ইসলাম ২/১৪, তাসকিন আহমেদ ১/২৯, রায়াদ এমরিত ১/২৮, তানভীর হায়দার ০/১৫, আল-আমিন ০/২২, লুইস রিসি ১/২১, সিকান্দার রাজা ৪/১৬)।
প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: লুইস রিসি (চিটাগং ভাইকিংস)।