শেষ ওভারের নাটকীয়তায় রংপুরের জয়

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
শেষ ওভারের নাটকীয়তায় জয় পেল রংপুর রাইডার্স। শনিবার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংসকে তিন উইকেটে হারালো রংপুর রাইডার্স। আট ম্যাচ খেলে আট পয়েন্ট নিয়ে এখন পয়েন্ট টেবিলে চতুর্থ অবস্থানে আছে রংপুর রাইডার্স। আর আট ম্যাচ খেলে পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে চিটাগং ভাইকিংস।
এদিন চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে চিটাগং ভাইকিংসের দেয়া ১৭৭ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে সাত উইকেট হারিয়ে ইনিংসের শেষ ওভারে জয় তুলে নেয় রংপুর রাইডার্স।
দলের পক্ষে মোহাম্মদ মিথুন ৪৪, মাশরাফি বিন মুর্তজা ৪২, ক্রিস গেইল ৩৩ ও থিসারা পেরেরা ২৮ রান করেন। চিটাগং ভাইকিংসের পক্ষে আল-আমিন ১টি, তাসকিন আহমেদ ১টি, সৌম্য সরকার ১টি, সানজামুল ইসলাম ১টি, তানভীর হায়দার ১টি ও লুইস রিসি ১টি করে উইকেট নেন।
আজ শেষ ওভারে রংপুর রাইডার্সের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৪ রানের। এই ওভারে বোলিংয়ে ছিলেন তাসকিন আহমেদ। ওভারের প্রথম বলে দুই রান নেন থিসারা পেরেরা। দ্বিতীয় বলে তিনি ছক্কা হাঁকান। তৃতীয় বলে রান আউট হন নাহিদুল ইসলাম। চতুর্থ বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ হন শাহরিয়ার নাফিস। পঞ্চম বল থেকে আসে দুই রান। এরপরের বলটি হয় ওয়াইড। আর শেষ বলে ছক্কা মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন থিসারা পেরেরা।
রংপুর রাইডার্স ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ৩১ রানে প্রথম উইকেট হারায়। মাত্র ১৫ রান করে আল-আমিনের বলে বোল্ড হয়ে যান ব্রেন্ডন ম্যাককলাম। এরপর ব্যাটিংয়ে নামেন রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তিনি ও ক্রিস গেইল ৬০ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। দলীয় ৯১ রানে সানজামুল ইসলামের বলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান মাশরাফি বিন মুর্তজা। ১৭ বল খেলে তিনি করেন ৪২ রান। এই রান করার পথে তিনি চারটি চার ও তিনটি ছক্কা হাঁকান।
এরপর দলীয় ৯৭ রানে তানভীর হায়দারের বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে একেবারে সীমানার কাছে লুকে রঞ্চির হাতে ক্যাচ হন ক্রিস গেইল। ২৫ বল খেলে ৩৩ রান করেন তিনি। দলীয় ১২৯ রানে সৌম্য সরকারের বলে নাজিবুল্লাহ জাদরানের হাতে ক্যাচ হন রবি বোপারা।
১৯তম ওভারে লুইস রিসির বলে বোল্ড হন মোহাম্মদ মিথুন। ২৯ বল খেলে ৪৪ রান করেন তিনি। ইনিংসের শেষ ওভারের তৃতীয় বলে রান আউট হন নাহিদুল ইসলাম। চতুর্থ বলে সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ হন শাহরিয়ার নাফিস।
এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রান সংগ্রহ করে চিটাগং ভাইকিংস। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৮ রান করেন স্টিয়ান ভ্যান জিল। রংপুর রাইডার্সের পক্ষে লাসিথ মালিঙ্গা ১টি, রুবেল হোসেন ১টি, নাহিদুল ইসলাম ১টি, মাশরাফি বিন মুর্তজা ১টি ও থিসারা পেরেরা ১টি করে উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
ফল: তিন উইকেটে জয়ী রংপুর রাইডার্স।
চিটাগং ভাইকিংস ইনিংস: ১৭৬/৭ (২০ ওভার)
(লুকে রঞ্চি ১১, সৌম্য সরকার ৩০, এনামুল হক বিজয় ৭, স্টিয়ান ভ্যান জিল ৬৮, সিকান্দার রাজা ২২, নাজিবুল্লাহ জাদরান ২৫, লুইস রিসি ১, তানভীর হায়দার ৩*, আল-আমিন ১*; সোহাগ গাজী ০/৩৫, লাসিথ মালিঙ্গা ১/৩৭, মাশরাফি বিন মুর্তজা ১/২৪, নাহিদুল ইসলাম ১/৪, রুবেল হোসেন ১/৩৯, থিসারা পেরেরা ১/৩৫)।
রংপুর রাইডার্স ইনিংস: ১৮০/৭ (২০ ওভার)
(ব্রেন্ডন ম্যাককলাম ১৫, ক্রিস গেইল ৩৩, মাশরাফি বিন মুর্তজা ৪২, মোহাম্মদ মিথুন ৪৪, রবি বোপারা ১১, থিসারা পেরেরা ২৮*, নাহিদুল ইসলাম ০, শাহরিয়ার নাফিস ০, লাসিথ মালিঙ্গা ০*; সিকান্দার রাজা ০/৭, আল-আমিন ১/২৯, তাসকিন আহমেদ ১/৩৮, সৌম্য সরকার ১/২৪, স্টিয়ান ভ্যান জিল ০/৩০, সানজামুল ইসলাম ১/২৩, তানভীর হায়দার ১/১৪, লুইস রিসি ১/১৩)।
প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: মাশরাফি বিন মুর্তজা (রংপুর রাইডার্স)।