প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ

কাজিরবাজার ডেস্ক :
প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা পদত্যাগ করেছেন। সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং সরকারের কাছ থেকে প্রচণ্ড চাপের মুখে বিচারপতি এস কে সিনহা দেশ ছেড়ে যান বলে অভিযোগ রয়েছে। এমন প্রেক্ষাপটে এবার এলো তার পদত্যাগের খবর।
তিনি রাষ্ট্রপতি বরাবরে পদত্যাগপত্র দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বঙ্গভবনের মুখপাত্র জয়নাল আবেদীন।
বিচারপতি এস কে সিনহার ছুটি শেষ হয়ে যাওয়ায় তিনি দেশে ফিরবেন কি-না সে নিয়ে আলোচনার প্রেক্ষাপটেই সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে তার পদত্যাগ পত্র জমা দেয়ার খবর জানা যায়।
তিনি শুক্রবার পদত্যাগপত্র দেন এবং সেটি বঙ্গভবনে পৌঁছেছে শনিবার সকালে। রাট্রপতির প্রেসসচিব জয়নাল আবেদীন এ তথ্য জানিয়েছন। তবে পদত্যাগের কারণ হিসেবে চিঠিতে কী লেখা হয়েছে সেটি এখনই জানাতে পারেননি রাষ্ট্রপতির প্রেসসচিব।
তবে বিচারপতি এস কে সিনহার পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য জানা যায়নি।
গত ১৩ অক্টোবর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের বাইরে অবস্থানের অনুমতি চেয়ে প্রধান বিচারপতি যে চিঠি দেন, সে ছূটি শেষ হয়ে গেছে গতকালই।
সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ এবং সরকারের কাছ থেকে প্রচণ্ড চাপের মুখে পড়েছিলেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।
সে টানাপড়নের একপর্যায়ে আইনমন্ত্রী জানান, বিচারপতি এস কে সিনহা তাকে জানিয়েছেন, তিনি ক্যান্সারের রোগী। এরপরই জানা যায়, প্রধান বিচারপতি ছুটিতে যাচ্ছেন।
এ নিয়ে চলমান বিতর্কের মাঝেই বিচারপতি এস কে সিনহা লম্বা ছুটি নিয়ে প্রথমে অস্ট্রেলিয়া যান, সেখান থেকে যান সিঙ্গাপুরে।
কিন্তু দেশ ছাড়ার আগে সাংবাদিকদের হাতে দিয়ে যান কিছু লিখিত বক্তব্য যা সরকারের দেয়া বক্তব্যের সাথে পুরোটাই অসঙ্গতিপূর্ণ। সেইসাথে তিনি অসুস্থ নন বলেও জানান।