জগন্নাথপুরে তথ্য অফিসের প্রেস বিফ্রিং ॥ ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী

জগন্নাথপুর থেকে সংবাদদাতা :
ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আন্তরিক ভাবে কাজ করছেন। এ লক্ষ্যকে বাস্তবায়ন করতে সরকার উল্লেখ যোগ্য ১০টি প্রকল্প হাতে নিয়েছে।
সুনামগঞ্জ জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে বর্তমান সরকারের সাফল্য অর্জন ও উন্নয়ন ভাবনা জনগণকে অবহিত এবং সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে মঙ্গলবার জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিং করা হয়। প্রেস ব্রিফিংয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের সামনে সরকারের পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উপস্থাপন করেন জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ ও সুনামগঞ্জ জেলা তথ্য কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন। এতে উল্লেখ করা হয়, একটি বাড়ি একটি খামার, আশ্রায়ন প্রকল্প, ডিজিটাল বাংলাদেশ, শিক্ষা সহায়তা, নারী ক্ষমতায়ন, সবার জন্য বিদ্যুৎ, সামাজিক নিরাপত্তা, কমিউনিটি ক্লিনিক, শিশু বিকাশ, বিনিয়োগ ও পরিবেশ সুরক্ষা সহ ১০টি প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার আন্তরিক ভাবে কাজ করছেন।
এর মধ্যে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প গ্রামের দরিদ্র মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে বিপ্লবে পরিণত হয়েছে। সারা দেশে ৪০ হাজার ২১৪টি সমিতির মাধ্যমে ১ কোটি ২২ লক্ষ মানুষ উপকার ভোগী হচ্ছেন। এতে আগামি ২০২০ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার ৮ শতাংশ কমিয়ে আনা যাবে। শিক্ষা সহায়তার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় উৎসাহী করা হচ্ছে। এতে শিক্ষার হার গত ৬ বছরে ৪৪ শতাংশ থেকে ৭০ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। ১ জানুয়ারি শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে ৬২ কোটি ৬৪ লক্ষ বই বিতরণ করা হয়। প্রথম শ্রেণি থেকে ডিগ্রি পর্যন্ত ১ কোটি ২২ লক্ষ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি ও উপবৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। ২৬ হাজার ১৯৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয় করণ করা হয়েছে। এছাড়া ১২ হাজার ৯৫৬টি পল্লী মাতৃ স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মাধ্যমে সুবিধা বঞ্চিত নারীদের সুদমুক্ত ঋণ প্রদান করা হয়েছে। নারীদের স্বাক্ষরতার হার শতভাগে উন্নীত ও সরকারি চাকুরিতে প্রদায়নের হার ২৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। গ্রামের মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌছে দিতে সরকার কমিউনিটি ক্লিনিক গড়ে তুলেছে এবং বিনামূলে ৩০ প্রকার ওষুধ প্রদান করছে। এতে মাতৃ মৃত্যুর হার কমে এসেছে। অসহায় মানুষকে পুনর্বাসিত করা হয়েছে। আশ্রায়ান প্রকল্পের মাধ্যমে এসব কাজ হচ্ছে। বিনামূলে বিদ্যুৎ সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। যাদের জমি আছে ঘর নাই, তাদেরকে গৃহ নির্মাণ করে দেয়া হচ্ছে। সেই সাথে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে রূপকল্প প্রকল্পের মাধ্যমে ইতোমধ্যে দেশের ৪ হাজার ৫২৭টি ইউনিয়নে ডিজিটাল তথ্য সেবা কেন্দ্রে ২০০ ধরণের সেবা সহ বিভিন্ন অনলাইন সুবিধা চালু করা হয়েছে। তাছাড়া আরো বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হয়। এতে দেশের জনগণ অনেক উপকৃত হচ্ছেন বলে উল্লেখ করা হয়।
এ সময় প্রেস ব্রিফিংকালে উপস্থিত ছিলেন, সুনামগঞ্জ জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা বাদল চন্দ্র বর্মন, জেলা ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেল প্রোগ্রাম অফিসার সৈয়দা শাহনাজ মঞ্জুর, জগন্নাথপুর উপজেলা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক মো.শাহজাহান মিয়া, সাংবাদিক হুমায়ূন কবির ও রিয়াজ রহমান প্রমুখ।