বাংলাদেশে মুগ্ধ স্মিথ

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসা পুরো অস্ট্রেলিয়া দলেরই এখানকার কন্ডিশনে টেস্ট খেলার 245416_193কোনো অভিজ্ঞতা নেই। বাংলাদেশের কন্ডিশনে অনভিজ্ঞ দল নিয়ে মাঠে নামতে হবে অস্ট্রেলিয়াকে। তাই দুই ম্যাচের সিরিজে ফেভারিট বাছাইয়ে বেশ সতর্ক অসি দলপতি স্টিভেন স্মিথ। সিরিজটি কঠিনই হবে বলে মনে করেন তিনি।
উপমহাদেশে অস্ট্রেলিয়ার সাম্প্রতিক অতীত রেকর্ডও বড় বিষয় হবে। ২০০৬ সালের পর আবারো বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলিয়া। সর্বশেষ ভারতের মাটিতে চার ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে হেরে বাংলাদেশের মাটিতে পা রেখেছে অসিরা। তাই পারফরমেন্সের দিক দিয়ে ধারাবাহিক হবার সুযোগ পাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া।
বাংলাদেশে আসার পর প্রথম সংবাদ সম্মেলনে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্মিথ বলেন, ‘আমার মনে হয়, দারুণ একটি সিরিজ হবে। বাংলাদেশ এখন খুবই ভালো দল। আমি ফেভারিট দল নির্বাচন করতে পারছি না। দলের সামর্থ্য নিয়ে আমাদের সন্তুষ্ট থাকতে হবে । আশা করছি পরিকল্পনা কাজে লাগাতে পারব এবং দুর্দান্ত একটি সিরিজ হবে।’
‘উপমহাদেশে আমাদের রেকর্ড সমৃদ্ধ করার একটা সুযোগ এসেছে। ভারতে কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমরা ভালো করেছি। আমাদের আরো বেশি ভালো করা ও ধারাবাহিক হওয়া দরকার। সামর্থ্য প্রমাণের আরও একটি সুযোগ আমাদের সামনে। আমরা আগে যা শিখেছি সেটা প্রমাণ করে সামনে ভালো কিছু করার আশা করছি।’
এই সিরিজটি অস্ট্রেলিয়ার জন্য বড় পরীক্ষার, বিশেষভাবে বোলিং অ্যাটাকের। ভারত সফরে ভালো করা স্টিভ ও’কেফির বাদ পড়া নিয়ে কথা বলেছেন স্মিথ। নাথান লিঁও’র পর দলের দ্বিতীয় স্পিনারের ভূমিকা পালন করবেন অ্যাস্টন আগার। স্মিথ বলেন, ‘তার (ও’কেফি) দুর্ভাগ্য। ভারতের প্রথম টেস্টে দারুণ পারফরমেন্স করেছে সে। অন্য তিনটি টেস্ট সিরিজেও সে দারুণ অবদান রেখেছিলেন। আমরা গ্রুপে নতুন কাউকে দিয়ে কিছু করার চেষ্টা করছি।’
তিনি আরো বলেন, ‘অ্যাস্টন বেশ কিছু দিন যাবৎ দলের সঙ্গে আছে। সে কঠোর পরিশ্রম করছে এবং ধারাবাহিকভাবে ভাল করছে।’
বাংলাদেশের সিনিয়র খেলোয়াড়দের উপর চাপ সৃষ্টি করতে পারলে অস্ট্রেলিয়ার সাফল্য পাবার সুযোগ রয়েছে বলে মনে করেন স্মিথ। বাংলাদেশ কখনো টেস্ট ফরম্যাটে অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে পারেনি। তিনি বলেন, ‘সাকিব, তামিম ও মুশফিকরা অনেক ক্রিকেট খেলেন এবং নিজেদের খেলা সর্ম্পকে ভালো বুঝতে পারেন। তারা খুবই ভয়ংকর তাই সাফল্য পেতে হলে তাদের আটকাতে হবে।
তৃতীয়বারের মতো দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলতে নামবে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া। তবে এই সিরিজটি ২০১৫ সালে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নিরাপত্তার খোড়া অজুহাত দেখিয়ে সে সময় সফর স্থগিত করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।
তবে ঢাকায় পা রেখে বাংলাদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তোষ প্রকাশ করে অসি দলপতি স্মিথ বলেন ‘এখানকার নিরাপত্তায় সত্যিই আমরা মুগ্ধ। আমাদের এ সফরকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ব্যাপক নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিয়েছে। মিরপুরে এসে আমার দারুণ লাগছে।’