বিশ্বকাপে নজর কাড়বেন যে তরুণ তারকারা

0
27

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
আর মাত্র পাঁচ দিন পরেই রাশিয়ায় পর্দা উঠাবে ফিফা বিশ্বকাপের। বিশ্বসেরা হওয়ার এই প্রতিযোগীতায় লড়বে মানচিত্রের ৩২টি দেশ। প্রতি বিশ্বকাপেই দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের কারণে কিছু কিছু খেলোয়াড় খ্যাতির শীর্ষে চলে আসেন৷ এবারের আসরেও বেশ কিছু তরুণ তারকা আছে যারা আলো কাড়তে পারেন মূল আসরের।
এক নজরে দেখা নেওয়া যাক এই তরুণ ফুটবলারদের:
মার্কো আসেনসিও
রিয়াল মাদ্রিদের নিয়মিত খেলার সু্যােগ পাওয়া স্প্যানিশ তরুণ খেলোয়াড়দের মধ্যে অন্যতম হলেন ২২ বছরের আসেনসিও৷ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে অনূর্ধ্ব-২১ দলকে ফাইনালে নিয়ে গিয়েছিলেন এই তারকা ফুটবলার৷ এবার বিশ্বকাপেও তাঁকে দেখা যেতে পারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায়৷ রাশিয়া বিশ্বকাপে তিনি সবার নজর কাড়তে পারেন।
টিমো ভেরনার, জার্মানি
ক্ষিপ্রতা, ট্যাকটিকস সব দিক দিয়েই জার্মান দলের অন্য খেলোয়াড়দের চেয়ে আলাদা হলেন টিমো ভেরনার৷ গত মৌসুমে কিছুটা বাজে সময় গেলেও, চ্যাম্পিয়নদের আশা, বিশ্বকাপে পুরনো ফর্মে নিয়ে ফিরে আসবেন ভেরনের। তাই এই জার্মানির উপর সবার নজর থাকতে পারে।
গাব্রিয়েল জেসুস, ব্রাজিল
নেইমার পরবর্তী আইকন সম্ভবত পেয়ে গেছে ব্রাজিল৷ ২১ বছরের জেসুস গত মৌসুমে ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে ১৭ গোল করেছেন, ৫টি অসাধারণ গোলে সহায়তা (অ্যাসিস্ট) করেছেন৷ তিতের উজ্জীবিত ব্রাজিল দলে নিঃসন্দেহে নজর কাড়বেন জেসুস৷
রদ্রিগো বেটানকুর, উরুগুয়ে
সাম্প্রতিক বছরগুলোতে উরুগুয়ে আক্রমণ ও রক্ষণভাগে বেশ কিছু তারকা খেলোয়াড় উপহার দিয়েছে৷ কিন্তু মধ্যমাঠ কাঁপাচ্ছেন ২১ বছরের বেটানকুর৷ গত মৌসুমে জুভেন্তাসের হয়ে ২৭টি ম্যাচ খেলেছেন এই তরুণ তারকা৷ এবারের বিশ্বকাপেও তার ভালো করার সম্ভবনা অনেক।
জিওভানি লো সেলসো, আর্জেন্টিনা
আর্জেন্টিনা দলের অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের ভিড়ে আলাদাভাবে নজর কাড়ছেন লো সেলসো৷ মিডফিল্ডার হয়েও প্যারিস সঁ জার্মেই দলের হয়ে ৪৮ ম্যাচে করেছেন ৬ গোল, গোলে সহায়তা করেছেন সাতবার। তাই মেসি-হিগুয়েনদের সঙ্গে তার কেমিস্ট্রিও বেশ ভালো জমবে।
হুয়াং হি-চ্যান, দক্ষিণ কোরিয়া
অস্ট্রিয়ার রেড বুল জালসবুর্গকে ইউরোপা লিগের সেমিফাইনালে নিয়ে যাওয়ার পেছনে অন্যতম ভূমিকায় ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার হুয়াং৷ এবার বিশ্বকাপে জাতীয় দলের হয়েও এমন সাফল্য দেখাতে চান তিনি৷
আলেক্সান্ডার গোলোভিন, রাশিয়া
রুশ ফুটবলের তারকা গোলোভিন৷ কেমেরোভো অঞ্চলের এই তরুণ সিএসকেএ মস্কো দলে নিয়মিতই খেলছেন৷ এই গ্রীষ্মে তাঁকে দেখা যাবে রুশ জাতীয় দলে৷ নিজের দেশের হয়ে আবারও বিশ্ব মাতাবেন গেলোভিন। তাই গোটা রাশিয়ার নজরে তো আছেনই তিনি।
কিলিয়ান এমবাপে, ফ্রান্স
বিশ্ব কাঁপাতে প্রস্তুত ফ্রান্সের ১৯ বছরের এই ইয়াং সুপারস্টার৷ প্যারিস সঁ জার্মেইর হয়ে গত মৌসুমে ২১ গোল করেছেন এমবাপে, সহায়তা করেছেন ১৬ টি গোলে৷ নিজের প্রথম বিশ্বকাপে ফ্রান্সের হয়ে ট্রফি জেতার স্বপ্ন দেখছেন এমবাপে৷
সারদার আজমুন, ইরান
এশিয়ান ফুটবলে ভালো খেলোয়াড় বিবেচিত হতে হলে যেমন হতে হয়, আজমুনের পরিসংখ্যান তার চেয়েও বেশ ভালো৷ ইরানের হয়ে ৩০ ম্যাচে অংশ নিয়ে ২২ গোল করেছেন ২৩ বছর বয়সি এই ফুটবলার৷ ইরানের আক্রমণভাগের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় আজমুন৷ তাই ধরাই যায় এই বিশ্বকাপে তিনিও আলো ছড়াতে পারেন।
হারভিং লোসানো, মেক্সিকো
গত বছর ডাচ প্রথম বিভাগ লিগে বেশ দাপট দেখিয়েছেন ২২ বছরের লোসানো৷ নিজে করেছেন ১৭ গোল, সহায়তা করেছেন ১১ গোলে৷ মেক্সিকোর ফুটবলপ্রেমীদের আশা, এই দাপট দেশের জার্সি গায়েও দেখাবেন লোসানো৷ তাই বিশ্বকাপে তার ভালো করার অনেক সম্ভাবনা রয়েছে।