নাইজেরিয়ায় সেনা ঘাঁটিতে হামলায় নিহত ১০০

0
36

কাজিরবাজার ডেস্ক :
নাইজেরিয়ায় উত্তরপূর্বের এক সেনা ঘাঁটিতে গত সপ্তাহে জঙ্গিদের হামলায় প্রায় ১০০ সেনা নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্র এই হামলার জন্য ইসলামিক স্টেট (আইএস)-কে দায়ী করেছে। শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স এই তথ্য জানিয়েছে।
২০১৫ সালের নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারি ক্ষমতায় আসার পর এ হামলাকেই সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। এই ঘটনায় আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় নির্বাচনে তার ওপর চাপ তৈরি হবে বলে মনে করা হচ্ছে। গত নয় বছর ধরে দেশটিতে চলা বিদ্রোহের বিরুদ্ধে জয় দাবি করেছিলেন প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারি।
রবিবার বোর্নো রাজ্যের মিতেলে গ্রামে এ হামলা হলেও কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার হতাহতের কথা স্বীকার করে।
সেনাবাহিনীর বেশ কয়েকটি সূত্র হামলায় তাদের প্রায় শ’খানেক সদস্যের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করছে। নিহত সেনা সদস্যদের লাশ আনতে গিয়ে মঙ্গলবারও ফের হামলার শিকার হতে হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।
অসংখ্য সৈন্য নিখোঁজ থাকায় নিহতের সঠিক সংখ্যা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। উত্তরপূর্বের বোর্নো রাজ্যে দীর্ঘদিন ধরেই বোকো হারাম ও ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিচ্ছিন্ন একটি গোষ্ঠী বেশ সক্রিয়। রবিবারের হামলাটি আইএসের ওই অংশটিই চালিয়েছে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক সেনা কর্মকর্তা বলেছেন, ‘বিদ্রোহীরা আমাদের হতবিহ্বল করে দেয়। অস্ত্রসহ পুরো ঘাঁটিটি জ্বলে গেছে। আমরা প্রায় শ’খানেক সৈন্য হারিয়েছে। এটা আমাদের বিরাট ক্ষতি।’
তিনি আরও বলেন, ‘ আমরা অস্ত্র, ট্যাঙ্ক সব ফেলে এসেছি। জঙ্গিদের কাছে সব আছে। গ্রামটি এখনো জঙ্গিদের দখলে।’
নিরাপত্তা বাহিনীর চারটি সূত্র জানায়, মিতেলে প্রায় একশ’ জন নিহত হয়েছে। তবে নিহতের সংখ্যা এটাই চূড়ান্ত নয়। অন্য আরেকটি সূত্র জানায়, সম্প্রতি উত্তরপূর্বাঞ্চলে ৯৬ জন নিহত হয়েছেন। তাদের অধিকাংশই মেতেলেতে।
হতাহতের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বৃহস্পতিবার সিনেটের অধিবেশনও স্থগিত করা হয়েছে।
নাইজেরিয়ার সরকার ও সেনাবাহিনী বেশিরভাগ সময়ই জঙ্গি হামলা ও ক্ষয়ক্ষতির কথা স্বীকার করে না। তবে গত সপ্তাহের হামলার বিষয়ে সেনাবাহিনী একটি বিবৃতি দেবে বলে দেশটির প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন। সেনাবাহিনীর মুখপাত্র এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। গত কয়েক মাসে কয়েকশ সেনা জঙ্গিদের হাতে নিহত হয়েছেন।