শীতে ঠোট ফাটা

0
180

 

অগ্রহায়ণের বাতাসে শীতের আগমনী গান। রাত নামলেই নামে শীত। এই সময় ত্বক হয়ে যায় শুষ্ক। ফাটে ঠোঁট। এই সময়ে ত্বক ও ঠোঁটের জন্য বাড়তি যত্ন চাই।

এই সময়ে ঠোঁট নরম রাখতে ব্যবহার করুন পেট্রোলিয়াম জেলি। এ ছাড়াও ব্যবহার করতে পারেন গ্লিসারিন কিংবা অলিভ অয়েল।

ঠোঁটে পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহারের কিছুক্ষণ পরে শুকিয়ে যায়। তাই সারাদিন একটু পর ঠোঁটে লাগান জেল। রাতে ঘুমানোর আগেও ঠোঁটে জেল মাখুন। কেননা, শীতের রাতে প্রায় সাত-আট ঘণ্টা শুকনা ঠোঁট থাকলে তা অচিরেই ফাটবে।

জেল ব্যবহারের পরও অনেকের ঠোঁট ফাটে। ঘরোয়া উপায়ে একটি বিশেষ যত্নে নিলে  শীতকালজুড়ে রাতেও আপনার ঠোঁট থাকবে আর্দ্র। কম সময়সাপেক্ষ ও পকেটসই দামের এ যত্নে আপনার ঠোঁটকে রক্ষা করবে শীতের শুষ্কতা থেকে।

রাতে ঘুমানোর আগে সামান্য ঘিয়ে মেশান একটু দুধের সর। তারপর এই মিশ্রণ ঠোঁটে লাগিয়ে রাখুন। দীর্ঘ সময় ধরে ত্বককে নরম রাখে ঘি। আর দুধের সর ত্বকের অভ্যন্তরের ময়লা দূর করে ও মৃত কোষ ঝরিয়ে দেয়। তাই এই মিশ্রণ সারা রাত ঠোঁটে দিয়ে রাখলে ঠোঁট নরম তো থাকেই, সঙ্গে ঠোঁটের কালো ভাবও দূর হবে।

ধূমপান থেকেও ঠোঁটের কালো ছোপ আসে। ধূমপান শরীরের অন্যান্য ক্ষতিও করে। তাই ঠোঁটের যত্নে ভালো ফল পেতে ধূমপান ছাড়াটাও উচিত।